Friday , April 20 2018
Home / বিনোদন / ফাহিমের সুইসাইড নোটে তোলপাড় নওরিনের টাইমলাইন, যা লিখা ছিল

ফাহিমের সুইসাইড নোটে তোলপাড় নওরিনের টাইমলাইন, যা লিখা ছিল

ছড়াকার জাহাঙ্গীর আলম জাহানের ছেলে ফাহিম শাহরিয়ার সৌরভ এর আত্মহত্যাকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তোপের মুখে পড়েছেন মডেল নওরিন আহমেদ। সোমবার (২৬ মার্চ) রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ভাড়া বাসায় গলায় ইলেকট্রিক তার পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন সৌরভ।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে আত্মহত্যার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে যান তিনি। এতে সৌরভ লিখেন, ‘আমার জন্য এতোদিন যিনি মিডিয়াতে নিজের প্রতিষ্ঠা করতে পারেন নি আজ থেকে তার পথের কাঁটা সরে গেলো দোয়া রইলো তার জন্য উনি যেন সুপারস্টার হন তার সুনাম ছড়িয়ে পড়ুক চারিদিকে এই কামনাই করি।’

তার এই স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে ফেসবুকে চলছে সমালোচনার ঝড়। এই প্রতিবেদন লেখার সময় নওরিন আহমেদের ফেসবুক টাইমলাইন ঘুরে দেখা যায়, সোমবার (২৬ মার্চ) তিনি সর্বশেষ পোস্ট দিয়েছেন। এতে বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গি করা নিজের ৯টি ছবি পোস্ট করে লিখেন, ‘কারেন্টলি ইন এ চিল এস ডিপ্রেশন’।

এর কয়েক ঘণ্টা পর ফেসবুকে সুইসাইড নোটটি পোস্ট করেন ফাহিম। এর আগে নওরিনের ওই পোস্টে ফাহিম মন্তব্য করেন- ‘ভালোবাসা ভালো থাকুক সবসময়।’

ফাহিমের মৃত্যুর পর তার সুইসাইড নোট এবং নওরিনের পোস্টটি ভাইরাল হয়ে যায়। পোস্ট দুটিতে একের পর এক মন্তব্য আসতে থাকে। মন্তব্যগুলোতে ফাহিমের মৃত্যুর জন্য নওরিনকেই দায়ী করা হয়।

আবু উবাইদা নামে একজন লিখেছেন- ‘ছেলেটাকে মাইরা ফালাইলেন???’

জেনিফা শবনম নামে আরেকজন মন্তব্য করেছেন, ‘কি দোষ ছিল ওর নওরিন?????????? কি এমন করেছিলো ও যে এভাবে চলে যেতে হলো ওর????????

ফারজাড জুলফিকার নামের একজন মন্তব্য করেছেন, ‘ভাল থাকিস ভাইয়া, দুনিয়াটা থাকার যোগ্য না বুঝে গিয়েছিলা তুমি, কারণ হয়ত তোমার অনুভূতি গুলো ছিল প্রবল, মানুষ বলবে তুই ভীতু কিন্তু না, এটা যে অনেক সাহসী একটা কঠোর প্রতিবাদ, একটা দৃষ্টান্ত সেটা আমরা অনেকেই হয়ত বুঝি, আজ তুই এটা না করে ইন্টারনেটে স্ক্রীনশটের ঝড় তুললে তোর প্রেম টাই মিথ্যা হয়ে যেত, যেখানে থাকিস, ভাল থাকিস ভাই।’

কাকলী পাল মলি লিখেছেন, ‘এই মহিলার কি হবে কিছুই হবে না। কিছু পাবলিক নিজের স্বার্থে সবই পারে। এমন সেলফিশের জন্য নিজের এমন দামি জীবন হত্যা না করাই ভালো।’

পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, ফাহিম শাহরিয়ার সৌরভ পেশায় একজন প্রকৌশলী ছিলেন। সম্প্রতি তিনি মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ হিসেবে আনন্দ পুলিশ হাউজিং সোসাইটিতে যোগ দেন। এছাড়া মডেলিংও করতেন সৌরভ। এর সুবাদেই নওরিনের সঙ্গে পরিচয়। নওরিন মডেলিংয়ের পাশাপাশি একুশে টেলিভিশনে নিয়মিত অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন।

ফাহিম শাহরিয়ার সৌরভ এর সুইসাইড নোটটি তুলে ধরা হলো- ‘আম্মু মারা যাওয়ার পর থেকে আমার দুনিয়াটা অনেক ছোট হয়ে গিয়েছিল। আমার ভবিষ্যৎ চাওয়া পাওয়া বলতে যা ছিলো আজ তা ও আমাকে ছেড়ে চলে গেলো। স্বপ্ন দেখার মতো কিছু নেই। আমার জন্য এতোদিন যিনি মিডিয়াতে নিজের প্রতিষ্ঠা করতে পারেন নি আজ থেকে তার পথের কাঁটা সরে গেলো দোয়া রইলো তার জন্য উনি যেন সুপারস্টার হন তার সুনাম ছড়িয়ে পড়ুক চারিদিকে এই কামনাই করি। যদি কখনো কাউকে কোন প্রকার কষ্ট দিয়ে থাকি তার জন্য সরি ক্ষমা করে দিবেন সবাই। শেষ কথা হচ্ছে আমার জন্য কেউ যেন কাউকে দোষারোপ না করে আমি যা করেছি আমি আমার নিজের চিন্তা ভাবনায় করেছি। আল্লাহ হাফেজ: ভালো থেকো দুনিয়ার মানুষেরা।’

উল্লেখ্য, সৌরভের মৃত্যুর মাত্র ৩৮ দিন আগে তার মায়ের মৃত্যু হয়। সেই শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি তাদের পরিবার। সৌরভের বাবা জাহাঙ্গীর আলম জাহান ছড়াকার হিসেবেই খ্যাত। এছাড়া তিনি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বিভিন্ন লেখালেখি করেছেন। তার দুই সন্তানের মধ্যে সৌরভ ছিলেন বড়। ছোট হলো একমাত্র কন্যা।

রাজধানীতে মৃত্যুর পর মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) নিজের বাড়ি কিশোরগঞ্জে তার লাশ নিয়ে আসা হয়। এশার নামাজের পর কিশোরগঞ্জের বড় বাজার এলাকার শামছু ভূঞা মসজিদে জানাজার নামাজ শেষ করে মসজিদের পাশেই মায়ের কবরের পাশে তাকে সমাহিত করা হয়।

ফাহিম শাহরিয়ার সৌরভ এর এই আত্মহত্যাকে কেন্দ্র করে ভার্চুয়াল জগতে ঝড় বইছে। তার সুইসাইড নোটে এক ব্যবহারকারী মন্তব্য করেন, ‘মন ছেলে দুটো দেখা যায় নাহ! যে ভালোবাসে এত্তোটা! প্রকৃত ভালোবাসার প্রমাণ দিয়ে গেলো এই ভাই টা! সবাই তার আত্নহত্যা কে দোষ দিলে বলবো যে, একটা মানুষ খুব কম কষ্টে মৃত্যু আশা করে না! সবাই মুখেই বলতে পারে, মরবো মরবো! কিন্তু এই ভয়ানক কাজ টি এতো সোজা নয়! যা ইতিহাসের পাতায় রেখে গেলেন উনি… আপনার মতো ছেলে যেনো বারবার প্রতিটি ঘরে জন্মায় ভাই! কিন্তু এমন প্রতারণা আর কষ্টের শিকার যেনো না হতে হয়! মন থেকে দোয়া করি, আল্লাহ আপনাকে জান্নাতে এ নেক… কারণ মানুষ টা আপনি খুব ভালো.. হে আল্লাহ, তুমি একে মাফ করো, আর তোমার রহমত দিয়ো… আমিন..।’

অন্য একজন মন্তব্য করেন, ‘ভাই এই কাজ টা কেন করলা। একটা খারাপ মেয়ের জন্য নিজের সুন্দর জীবন দিলা। পরিবারের কথা ভাবলা না। কাজটা ভালো হলো না ভাই।’

নওরিনের শেষ পোস্টে জাকিয়া জাহান পুষ্প নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেন, ‘তোমাদের মত ফটকা মেয়েদের জন্য মেয়েদের কলঙ্ক হয়। কি এমন ক্ষতি হতো মডেলিং ছাড়লে? মেরেছো ছেলেটাকে শান্তি হয়েছো। এই পাপের বুঝা নিয়ে জীবনেও বেহেস্ত পাইবা না… কত ভাল ছেলেটা।’

অন্য একজন লিখেন, ‘ভালোবাসাকে মেরে ফেললা: এ কেমন বিচার তোমার নওরিন।’

দুই জনের টাইমলাইনেই একসঙ্গে তোলা তাদের কিছু ছবিও দেখা যায়।

Check Also

যৌ’ন হয়রানি নিয়ে মুখ খুললেন ঐশ্বরিয়া

যৌ’ন কেলেঙ্কারি নিয়ে হলিউড প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইনের কুকীর্তির জেরে বিশ্ব জুড়ে সমালোচনা হয়েছে। এরকম ঘটনার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *